Linkedin কি ও এর ব্যবহারের উপকারিতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp

Linkedin পেশাজীবীদের একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম ওয়েবসাইট । আজ আমরা আলোচনা করব Linkedin কি ও এর ব্যবহারের উপকারিতা সম্পর্কে-

Linkedin ২০০২ সালে রেইড হফম্যান ,অ্যালেন ব্লু, কন্সটেনটাইন,এরিক লে,  এবং জিয়ান-লাক ভিলেন্ট যৌথভাবে প্রতিষ্ঠা করেন । এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ৫ মে ২০০৩ সালে।বর্তমানে এর নিবন্ধিত ব্যবহারকারির সংখ্যা ২২৫  মিলিয়নের বেশী।প্রায় ২০০ এর বেশী বিভিন্ন দেশের নাগরিক এটি ব্যবহার করছে। এর সদর দপ্তর মাউন্টেনভিও, ক্যালিফোর্নিয়া, যুক্তরাষ্ট্রে  অবস্থিত।


Linkedin এর ব্যবহারের উপকারিতা

  • এটি মূলত পেশাজীবীদের একটি বৃহৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এ ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের মানুষ এটি ব্যবহার করছে।
  • পৃথিবীর যে কোন দেশের যে কোন কোম্পানির যে কোন লোককে পাওয়া সম্ভব Linkedin দ্বারা। এটি পেশাজীবীদের সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম ।
  • এটি ব্যবহার করে অনেকেই মনের মত চাকরী খোঁজে নিচ্ছে।
  • লিঙ্কডইন দ্বারা সহজে বিভিন্ন কোম্পানির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পাওয়া যায় অল্প সময়ের মধ্যে।
  • লিঙ্কডইনে আপনার পোষ্টে কেউ লাইক কমেন্ট বা শেয়ার করলে আপনার পোষ্টটি তার সাথে যুক্ত সবার কাছে পৌঁছে যাবে। ফলে আপনার প্রচারণাও বেড়ে যাবে।
  • লিঙ্কডইন ব্যবহার করে আপনি সরাসরি পছন্দের কোম্পানিতে চাকরীর আবেদন করতে পারবেন।এর জন্য আপনার প্রোফাইল টি হতে হবে তথ্যবহুল সাজানো গোছানো।
  • দেশ-বিদেশের  বিভিন্ন ছোট বড় কোম্পানিগুলোর পেজ বা গ্রুপগুলো ফলো করলে জানতে পারবেন তাদের প্রতিদিনের আপডেটগুলো। ও তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে।
  • লিঙ্কডইনে আপনি আপনার বিভিন্ন ডকুমেন্ট, লেখা, আপলোডগুলো তোলে ধরতে পারবেন, তবে সেগুলো হতে হবে প্রফেশনাল মানের। যা  দেখে আপনার সম্পর্কে অনেকে পজিটিভ আইডিয়া নিবে।
  • আপনি নিজের সিভিটি লিঙ্কডইনে আপলোড করে রাখতে পারেন, ফলে  যারা আপনার প্রোফাইল ভিজিট করবে, তারা চাইলে আপনার সিভিটি দেখতে পারে। এতে আপনার কাজ পেতে সুবিধা হবে।
  • ইউনিভারসিটিতে প্রথম দিকে  পড়াকালীন সময়ে লিঙ্কডইন প্রোফাইল তৈরি করে নিলে পাশ করার আগেই  তৈরি হয়ে যাবে আপনার ১০০০ টির বেশি কানেকশন যা আপনার ক্যারিয়ারে বিশাল সুবিধা বয়ে আনবে।
  • লিঙ্কডইনে আপনি পাবেন এন্ডোর্সমেন্টের সুযোগ, যা  আপনার কোন কাজে কতটুকু দক্ষ তা পরবর্তী ইমপ্লয়ারের কাছে সহজে তুলে ধরার সুযোগ তৈরি করে দিবে।

সুতরাং বর্তমানের এই ডিজিটাল যুগে আপনাকে প্রতিনিয়ত হতে হবে অ্যাডভান্স। থাকতে হবে বিশাল নেটওযার্ক। আর এই নেটওয়ার্ক এর জন্য সবচেয়ে উন্নত মাধ্যমটির নাম হলো লিঙ্কডইন।

RH Rony

RH Rony

One Response

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Get Our Free Ultimate Guide to your Mail